Events

ইউআইটিএস-এর ইইই বিভাগের ছাত্রদের সাফল্য

 

ইউনিভার্সিটি  অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেস (ইউআইটিএস)-এর ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মোঃ সারোয়ার হোসেন, মোঃ আবু তুহিন, মোঃ সাজু মিয়া, মোঃ মোর্শেদ সরকার ও মোঃ মাহাদী হাসান অত্র বিভাগের প্রভাষক তন্ময় দাস-এর অধীনে ডিজাইন অ্যান্ড ইমপ্লিমেন্ট অব কিট ফর ল্যাব এক্সপেরিমেন্ট প্রজেক্টটি সম্পূর্ণ করেছে। তাদের তৈরি এই কিট দ্বারা ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইলেক্ট্রনিক ল্যাবরেটরীতে একসাথে ১০টি এক্সপেরিমেন্ট করা যাবে। এখানে আলাদা কোন ইক্যুপমেন্ট প্রয়োজন হবে না। খুব অল্প সময়ে ছাত্র-ছাত্রীরা এই সিঙ্গেল কিট দ্বারা একসাথে অনেকগুলো ব্যবহারিক ক্লাস করতে পারবে। বর্তমানে এই কিটটি বাজারমূল্য প্রায় পাঁচ-ছয় লক্ষ টাকা।

গত ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ তারিখ, শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস মিলনায়তনে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. চৌধুরী এম জাকারিয়া-এর  সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত নবীনবরণ বসন্ত ২০১৬ অনুষ্ঠানে এই অভাবনীয় সাফল্যের জন্য প্রধান অতিথি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী মোহাম্মদ ছায়েদুল হক,এমপি এবং বিশেষ অতিথি ইউআইটিএস বোর্ড অব ট্রাস্টিজ ও পিএইচপি পরিবারের মাননীয় চেয়ারম্যান আলহাজ সূফী মোহাম্মদ মিজানুর রহমান-এর কাছ থেকে সনদ ও পাঁচ হাজার টাকার চেক গ্রহণ করেন ছাত্রদের পক্ষ থেকে মোঃ সারোয়ার হোসেন। সম্মানিত অতিথি মহোদয়গণ উক্ত ছাত্রদেরকে অভিনন্দন জানান।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব জনাব সরকার আবুল কালাম আজাদ, বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের এডভোকেট ব্যারিষ্টার ড. মোঃ আশরাফুজ্জামান, ইউআইটিএস বোর্ড অব ট্রাস্টিজ-এর সম্মানিত সদস্য সচিব অধ্যাপক ড. কে এম সাইফুল ইসলাম খান, সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউআইটিএস বোর্ড অব ট্রাস্টিজ ও পিএইচপি পরিবারের মাননীয় চেয়ারম্যান আলহাজ সূফী মোহাম্মদ মিজানুর রহমান-এর শিক্ষক জনাব মোঃ মোমতাজ উদ্দিন মোল্লা, ইউআইটিএস-এর স্কুল অব বিজনেস-এর ডিন অধ্যাপক আ ন ম শরীফ, কোষাধ্যক্ষ  অধ্যাপক ড. এস. আর. হিলালী এবং স্কুল অব সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ডিন মোঃ মিজানুর রহমান-সহ আমন্ত্রিত অতিথি ও ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ।

ইউআইটিএস -এর নবীনবরণ অনুষ্ঠানে মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রী বাংলাদেশ এখন নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে আছে, কারো মুখাপেক্ষী নয়

 

ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেস (ইউআইটিএস)-এর উৎসবমুখর নবীনবরণ অনুষ্ঠানে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মৎস্য প্রাণী সম্পদ মন্ত্রী মোহাম্মদ ছায়েদুল হক বলেছেন, বাংলাদেশ এখন নিজের পায়ের উপর দাঁড়িয়ে আছে, কোন বিদেশি রাষ্ট্রের মুখাপেক্ষী নয় শিক্ষার সাথে বিধাতার আশীর্বাদ না হলে জীবনে বড় হওয়া যায় না বিশ্ববিদ্যালয় উচ্চ শিক্ষা পেশাদারী আধুনিক জ্ঞান অর্জনের কেন্দ্র তিনি আজ ইউআইটিএস এর বারিধারা ক্যাম্পাসে নবাগত ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন তিনি বলেন, আমাদের দেশ জাতিকে বিশ্বমানের উন্নত জাতিতে নিয়ে যাওয়ার জন্য পেশাদারী উচ্চ শিক্ষার কোন বিকল্প নাই তিনি আরও বলেন, আমাদের সরকার দেশকে আধুনিক বিশ্বে একটি বিশেষ সম্মানজনক অবস্থান উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার জন্য সর্বস্তরের শিক্ষার উপর অত্যন্ত গুরত্বারোপ করেছে জাতির এই লক্ষ্য অর্জনের পথে দেশের সরকারী বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলো চেষ্টা করে যাচ্ছে প্রধান অতিথি বলেন, আমি অত্যন্ত আনন্দিত যে, বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভিতর ইউআইটিএস বিভিন্ন পেশাদারী শিক্ষায় হাজার হাজার শিক্ষার্থীকে পর্যন্ত জাতির উন্নয়নের সৈনিক হিসেবে তৈরী করায় বিশেষ অবদান রাখতে সক্ষম হয়েছে

অদ্য ফেব্রুয়ারি ২০১৬ তারিখ, শনিবার সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক . চৌধুরী এম জাকারিয়া-এর সভাপতিত্বে বসন্তকালীন সেমিস্টারের নবীনবরণ বিশ্ববিদ্যালয়ের বারিধারার প্রধান ক্যাম্পাসের মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয় নবীন ছাত্র-ছাত্রীদের ফুল দিয়ে বরণ করে স্বাগত ভাষণ দেন ইউআইটিএস-এর স্কুল অব বিজনেস-এর ডিন অধ্যাপক শরীফ

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৎস্য প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব মোহাম্মদ ছায়েদুল হক, এমপি বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউআইটিএস-এর প্রতিষ্ঠাতা এবং ইউআইটিএস বোর্ড অব ট্রাস্টিজ পিএইচপি পরিবারের মাননীয় চেয়ারম্যান আলহাজ সূফী মোহাম্মদ মিজানুর রহমান এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব জনাব সরকার আবুল কালাম আজাদ এছাড়াও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের এডভোকেট ব্যারিষ্টার . মোঃ আশরাফুজ্জামান এবং ইউআইটিএস বোর্ড অব ট্রাস্টিজ-এর সম্মানিত সদস্য সচিব অধ্যাপক . কে এম সাইফুল ইসলাম খান

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউআইটিএস বোর্ড অব ট্রাস্টিজ ও পিএইচপি পরিবারের মাননীয় চেয়ারম্যান আলহাজ সূফী মোহাম্মদ মিজানুর রহমান-এর শিক্ষক জনাব মোঃ মোমতাজ উদ্দিন মোল্লা।

তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব জনাব সরকার আবুল কালাম আজাদ বলেন, আহসিটির অধীনে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহারে বাংলাদেশ ২০২০ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের রাষ্ট্র হিসেবে পরিনত হবে

নবীনদের উদ্দেশ্য করে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পিএইচপি ফ্যামিলির মাননীয় চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সূফী মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন,“এই বাংলা শুধু সোনার বাংলা নয়, এই বাংলাকে হিরার বাংলায়ও পরিণত করতে হবেআমরা আমাদের শিক্ষার্থীদের এই সোনার বাংলায় সোনার মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে চাই এই জন্য ছাত্র-ছাত্রীদেরকে সক্ষম সৎ চরিত্রবান হতে হবে

তিনি বলেন, নবাগতদের সবাইকে বিনয়ী হতে বলেন তিনি বলেন, বিদ্যার সাথে বিনয়, শিক্ষার সাথে দীক্ষা, কর্মের সাথে নিষ্ঠা, জীবনের সাথে দেশপ্রেম এবং মানবীয় গুণাবলীর সংমিশ্রণ ঘটাতে পারলে সত্যিকারের আদর্শবান মানুষ হওয়া যায় তিনি বলেন, উইম্যান পাওয়ারমেন্ট- বাংলাদেশ বিশ্বে জাগরণ সৃষ্টি করেছে যে বিদ্যা মানুষকে মানুষ না বানাবে আমরা সেই শিক্ষা চাইনা তিনি শিক্ষকদেরকে বলেন, আমাদের সন্তানদের মধ্যে যে শক্তি লুকিয়ে আছে তা জাগিয়ে তুলতে হবে তিনি আরো বলেন, বড় হওয়া নির্ভর করে, তোমার প্রয়োজনের তুলনায় কতটুকু বাড়তি কাজ করছ কাজের প্রতি তোমাদের একাগ্রতাই সফলতা আনবে কাংখিত স্বপ্ন পূরণের জন্য তোমাদের কাজ করে যেতে হবে তবে ভালো প্রতিষ্ঠান আর মানুষের সান্নিধ্য সফলতার পূর্ব শর্ত মেধার বীজ তোমাদের মনের ভিতর বপণ করতে হবে জাতি, সমাজ দেশকে বিশ্বের কাছে সম্মানিত করার গুরুদায়িত্ব বর্তমান প্রজন্মের তোমরা তরুণ সমাজ এদেশের ভবিষ্যৎ কর্ণধার


উল্লেখ্য, টপ-আপ আইটি অ্যান্ড আইটিইএস ফাউন্ডেশন স্কীলস্ ট্রেনিং বিটুইন প্রজেক্ট ইমপ্লিমেন্টেশন টীম, এলআইসিটি, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল, গভ. অব বাংলাদেশ (পিআইইউ) এবং ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেস (ইউআইটিএস) -এর মধ্যে সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষর অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়

অনুষ্ঠান শেষে আমন্ত্রিত অতিথিদের ক্রেস্ট প্রদান করা হয় কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক . এস. আর. হিলালী অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকল আমন্ত্রিত অতিথিদের আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানান অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন সকল শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী নবীন শিক্ষার্থীরা অনুষ্ঠানে সঞ্চালনা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ কামরুল হাসান

UITS B.Pharm Students visited Bridge Pharma


On 24th January 2016, a group of B.Pharm students took part in a one-day factory visit to Bridge Pharmaceuticals Limited,  Sarulia, Demra, Dhaka under the direction of Md. Mehedi Hasan, Lecturer, Department of Pharmacy, University of Information Technology & Sciences (UITS), Baridhara campus. Through the whole day students explored the warehouse, engineering department, production, quality control and microbiology department by the supervision of Mr. Azizul Hakim, Store officer; Mr. Arifur Rahman, Microbiologist; Mr. Forhad Sikder, Sr. Production officer Bridge Pharmaceuticals Limited.

Bridge Pharmaceuticals Limited is established with a vision to serve the people through quality medicine along with Quality Services at the minimum cost. At present, around 200 employees are working in this organization. They are highly skilled and serve this organization with their best effort. Employees are working in a very good environment. Corporate culture and values are helping them to develop continuously. They have solid dose, liquid syrup, powder, gel and injection manufacturing facilities.

Students spent the morning inside the warehouse where API, excipients and packaging are stored. In addition to that they observed the finished product store. Then the students continuously observed the bolus manufacturing, injection filling, liquid filling and packaging processes practically. After the lunch break, students explored the ETP, WFI and HVAC system. At the evening, a presentation on Bridge pharmaceuticals Limited was conducted by Mr. Arifur Rahman, Microbiologist with a session of ending speech. From the students, Biswajit Kumar expressed the gratefulness to the management of Bridge pharma for accepting them cordially. Another student named Ashiqur Rahman thanked the supervisors for fulfilling their dream. The production manager, Mr. Giash Uddin Khandoker said that they were very eager to disseminating practical knowledge by training the ‘to be pharmacist’. He also encouraged the students to study attentively with clear understanding what they are reading in the text books. “This factory visit gave the opportunity to observe and work with pharmacist and other factory personnel. UITS, Baridhara is committed to arrange practical experiences on how the medicines are made. That is why plans are under way for the future 3-day study tour in reputed pharmaceuticals manufacturing facilities.” says Mehedi Hasan, Lecturer, UITS.

ইউআইটিএস –এ ‘ইইই বিভাগে র‌্যাগ-ডে’ অনুষ্ঠিত

আনন্দ-উৎসবের মধ্য দিয়ে ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেস (ইউআইটিএস)-এর ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের গ্রীষ্মকালীন সেমিস্টার-২০১২ ব্যাচের উদ্যোগে র‌্যাগ-ডে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানটি ১৫ জানুয়ারি ২০১৬, শুক্রবার বিকাল তিনটায় বারিধারার ইউআইটিএস প্রধান ক্যাম্পাসে উদযাপিত হয়। পুরো ক্যাম্পাস রঙ-বেরঙের বেলুন দিয়ে সজ্জিত করে বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্কুল অব সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ডিন ড. মোঃ মিজানুর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইইই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক জগৎ বন্ধু বড়য়া এবং সহকারী অধ্যাপক ও ছাত্র উপদেষ্টা মোহাম্মদ একরামুল কবির। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইইই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও প্রক্টর পলাশ চন্দ্র কর্মকার।

প্রধান অতিথি স্কুল অব সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ডিন ড. মোঃ মিজানুর রহমান কেক কেটে র‌্যাগ-ডে অনুষ্ঠানটির শুভ উদ্বোধন করেন।

 

এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের মিলনায়তনে মনোজ্ঞ সংগীতানুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এ সময় ব্যান্ড সংগীতের সুর-মূর্ছনায় নৃত্যের তালে তালে আনন্দ-উল্লাসে মেতে ওঠে ছাত্র-ছাত্রীরা। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন স্কুল অব সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অন্যান্য শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ।